গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত অনলাইন নিবন্ধন নাম্বার ৬৮

নওগাঁয় দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১২ দিন ১০ ঘন্টা ৪৪ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 1090
...

এ.বি.এম.হাবিব- নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার কারাবন্দি দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদকি ফোরাম (BMSF)।

(২৩এপ্রিল) শনিবার মফস্বল সাংবাদকি ফোরাম নওগাঁ জেলা শাখার উদ্যেগে নওগাঁর মুক্তির মোড় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে কারাবন্দি সাংবাদিক কিউ এম সাঈদ টিটো ও কাজী সামসুজ্জোহা মিলনের নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়। সেখানে নওগাঁ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন, নওগাঁ টেলিভিশন সাংবাদিক এ্যাসোশিয়েশন সহ জেলার সকল উপজেলার সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।  মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের জেলা সভাপতি মোঃ মোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জেলা মফস্বল সাংবাদকি ফোরামের সহ সভাপতি এম আর রকি ও খোরশেদ আলম, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুন নবী বেলাল, যুগ্ম সম্পাদক এ কে সাজু, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজাদ হোসেন মুরাদ,এ.বি.এম.হাবিবুর রহমান হাবিব, মফস্বল সাংবাদকি ফোরাম মহাদেবপুর উপজেলা শাখার সভাপতি বরুন মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক এম সাখাওয়াত হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুর রহমান খোকন, কার্য নির্বাহী সদস্য আজাদুল ইসলাম আজাদ, বদলগাছী উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, আত্রাই উপজেলা শাখার নেত্রী মিতু মনি, উত্তরাঞ্চল উন্নয়ন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান, প্রজন্মের আলো সম্পাদক আব্দুর রহমান রিজভি প্রমুখ।

মানববন্ধনে সাংবাদিকরা বলেন, সাংবাদিক তথ্য সংগ্রহ করে যা পেয়েছে সেটাই প্রচার করেছে অনেকে লাইভও প্রচার করেছে। শিক্ষিকা আমোদীনি পাল হিজাব পড়ে স্কুলে ছাত্রীরা আসার কারণে প্রায় ১৮/২০ জন ছাত্রীকে মারপিট করেছে। সেই বক্তব্য ছাত্রীরা লাইভে সহ বিভিন্ন সাংবাদিকদের দিয়েছে। আমোদীনি পাল সহ স্কুলের হেড মাষ্টারের বক্তব্যও সেখানে নেওয়া হয়েছে। আমোদীনিপাল স্বীকার করেছে যে,সে ছাত্রীদের মারপিট করেছে তবে হিজাবের কথা পরে সে স্বীকার করে নাই। যদি ছাত্রীরা মিথ্যা বলে থাকে,তাহলে ছাত্রীরা অপরাধী হতে পারে। এতে সাংবাদিকেরা বাদীও নয় বিবাদীও নয়। তবে কেন সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা নিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হলো। আর শিক্ষিকা আমোদীনি পাল স্বীকার করেও তাকে গ্রেফতার কেন করা হচ্ছে না। প্রশাসন মহাদেবপুর সকল সাংবাদিকদের ডেকে সহিংসতা এড়াতে ফেইসবুক থেকে সংবাদ ও ভিডিও ডিলেট করার অনুরোধ করলে সকল সাংবাদিক তা ডিলেটও করেন এবং পরিস্থিতি অনুকুলে আনার জন্য প্রশাসন পজিটিভ নিউজ করার জন্য সকলকে অনুরোধ করেন সেটাও সাংবাদিকরা করেছেন। এরপর তদন্ত কমিটির তদন্তেও শিক্ষিকা আমোদীনি পাল ১৮/২০জন ছাত্রীদের নির্যাতন করেছে বিষয়টি উঠে এসেছে। তবে কেন সকলকে বাদ দিয়ে সাংবাদিকদের উপর এতো আক্রোশ প্রশ্ন সকল সাংবাদিকদের। অবশেষে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তাদের মুক্তির দাবী জানান সকল সাংবাদিকরা। এবং প্রকৃত দোষী শিক্ষিকা আমোদীনি পালকে গ্রেফতার করে, রিমান্ডে নিয়ে প্রকৃত সে কার ইশারায় মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত করেছে হেনেছিলো, এবং দেশে এতোবড় সহিংসতা সৃষ্টির প্রোগ্রাম করেছিলো। সেই প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের দাবীও জানিয়ে সভাপতির বক্তব্য শেষে মানববন্ধন শেষ করেন।

উল্লেখ্য গত ১৪ এপ্রিল রাতে দাউল বারবাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের আলোচিত শিক্ষিকা আমোদিনি পালের দায়ের করা মামলায় ৩জন সাংবাদিকের নাম উল্লেখ্য ও ২০/২৫জন অজ্ঞাত করে একটি মিথ্যা মামলায় মহাদেবপুর উপজেলা সদরের বাসিন্দা দৈনিক ডেল্টা টাইম ও দৈনিক নওরোজ পত্রিকার মহাদেবপুর প্রতিনিধি কিউ এম সাঈদ টিটো ও দৈনিক আমাদের অর্থনীতি পত্রিকার মহাদেবপুর প্রতিনিধি কাজী সামসুজ্জোহা মিলন নামের দু,জন সাংবাদিককে পুলিশ গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

...
A.b.m Habibur Rahman
01713667189

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ