+

বড়লেখায় বাল্যবিয়ে করানো ও ভাঙ্গানোর উস্তাদ ভুয়া কাজী নাজমুল ৩ মাসেও অভিযোগ তদন্ত করেননি জেলা রেজিষ্ট্রার

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৭ দিন ২ ঘন্টা ৪১ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 1920
...

বড়লেখা প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম:: বড়লেখায় মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বাল্যবিয়েসহ সবধরণের অবৈধ বিয়ের উস্তাদ ভুয়া কাজী নাজমুল ইসলাম। দুই নম্বরী বিয়ের কাবিন রেজিষ্ট্রীকারক হিসেবে উপজেলা জুড়ে যার সুপরিচিতি। তার এসব অপকর্মের হোতা পৌরশহরের ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নিকাহ্ রেজিষ্ট্রার মাদ্রাসা শিক্ষক কাজী এনামুল হক। তিনি বড়লেখা মোহাম্মদিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার ইবতেদায়ী প্রধান। তিনি এমপিওভুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষক হওয়া স্বত্ত্বেও পৌরসভার ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নিয়োগপ্রাপ্ত নিকাহ্ রেজিষ্ট্রার (কাজী)। অভিযোগ রয়েছে একাধিক মোহরীর নিযুক্ত করে তিনি নিজ এলাকার বাহিরেও বাল্যবিয়ে পড়িয়ে থাকেন। কাজী এনামুল হক ও ভুয়া কাজী নাজমুল হকের এসব অনিয়ম-দুর্নীতির ব্যাপারে প্রায় ৩ মাস পূর্বে জেলা রেজিষ্ট্রারের নিকট লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। কিন্ত রহস্যজনক কারণে তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ফলে কাজী এনামুল হক ও ভুয়া কাজী নাজমুল সিন্ডিকেট বাল্যবিয়ে ও অবৈধ বিয়ে পড়াতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। অনেকে ভুয়া কাজী নাজমুলের রেজিষ্ট্রীকৃত কাবিন সংগ্রহ করতে স্থানীয় বৈধ কাজীর অফিসে গিয়ে জানতে পারেন তারা প্রতারিত হয়েছেন। তখন তারা মারাত্মক দুর্ভোগের শিকার হন। তাদের এসব অবৈধ কর্মকান্ডে জনমনে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন। উপজেলার দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপি নিকাহ রেজিষ্ট্রার কাজী হুমায়ুন রশীদের জেলা রেজিষ্ট্রার বরাবর প্রেরিত লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, বড়লেখা মোহাম্মদিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার ইবতেদায়ী প্রধান এনামুল হক একাধারে পৌরসভার ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নিকাহ্ রেজিষ্ট্রার। গেজেটের ২০ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে কোন নিকাহ্ রেজিষ্ট্রার নিয়োজিত এলাকার বাহিরে সরকারী-বেসরকারী কোন প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করতে পারবেন না। তার বাড়ি পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের অজমির এলাকায় এবং কর্মস্থল মাদ্রাসার অবস্থান পৌরসবার ৪ নম্বর ওয়ার্ডে। এক এলাকায় নিয়োজিত নিকাহ্ রেজিষ্ট্রার অন্য এলাকায় গিয়ে বিবাহ পড়ানোর নিয়ম নেই। এসব নিয়ম কানুনের ধার ধারেন না কাজী এনামুল হক। মোহরী রাখার নিয়ম না থাকলেও তিনি নামে বেনামে লোক রেখে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে উপজেলার সর্বত্র বিয়ে পড়ান। এর বেশির ভাগই বাল্যবিয়ে। গত ১১ এপ্রিল বড়লেখা পৌরশহরের আলভিন রেস্টুরেন্টে দক্ষিণভাগ ইউনিয়নের কলাজুরা গ্রামের স্কুল পড়–য়া এক ষোড়ষীর বাল্য বিয়ে পড়ান কাজী এনাম মনোনিত দক্ষিণভাগের ভুয়া কাজী নাজমুল ইসলাম। মজার ব্যাপার বিয়ের ১৫ দিনের মাথায় স্টাম্পিংয়ের মাধ্যমে এই ভুয়া কাজী নাজমুল ইসলাম বিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছেন। দক্ষিণভাগের ভুয়া কাজী নাজমুল ইসলাম আলভিন রেস্টুরেন্টে দক্ষিণভাগের কলাজুরা গ্রামের স্কুল পড়–য়া ষোড়ষীর বাল্য বিয়ে পড়ানুর ও ১৫ দিনের মধ্যে বিয়ে ভাঙ্গার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তিনি বড়লেখা পৌরসভার কাজী এনামুল হকের মাধ্যমে বিয়ে রেজিষ্ট্রী করান। বিয়ে পড়ানোর সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন। কাজী এনামুল হক জানান, তিনি কোন মোহরী নিয়োগ দেননি। দক্ষিণভাগে তার কোন সহকারী নেই। কেউ তার নাম বললেই কি জড়িত হয়ে গেলাম। তিনি এসব কিছুই জানেন না। অন্যান্য অভিযোগ তিনি অফিসকে ম্যানেজ করে করছেন। জেলা রেজিষ্ট্রার জেড.এম ইমরান আলী জানান, অভিযোগটি তদন্ত করা হয়েছে কি না মনে পড়ছে না। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ জনিত কারণে ঠিকমতো অফিস করা যাচ্ছে না। তবে তিনি দ্রুত তদন্তের উদ্যোগ নিবেন।

...
Nazrul Islam(SJB:E615)
Mobile : 01792301830

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন
01868974512

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ