+

মুরাদনগরে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৮ দিন ২৩ ঘন্টা ৪২ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 860
...

মুরাদনগরে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন। কে এম শারফিন শাহ্ : কুমিল্লা ব্যুরো কুমিল্লার মুরাদনগরে ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন করলেন কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলা শাখার আওয়ামী অঙ্গসংগঠন। উক্ত আয়োজনে প্রধান অতিথি ,জাতীয় সংসদ কুমিল্লা - ৩ মুরাদনগর, আলহাজ্ব ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন এফসিএ। মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক রুহুল আমিন এর উপস্থাপনায় শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি মধ্য দিয়ে কোরআন তেলোয়াত দোয়া মোনাজাত ও কেক কাটা হয় । ১৮ অক্টোবর সোমবার শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মবার্ষিকীতে তার ভক্তরা আশা করেন, বাংলাদেশের মানুষের প্রয়োজন , ছোট্ট শিশু শেখ রাসেলের জন্য মানবতাবোধ,ছোট বয়সেই নেতৃত্বসুলভ আচরণ,পরোপকারী মনোভাবগুলো এদেশের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা। এবার সেটা দল কিংবা সরকারের পক্ষ থেকেই হোক, পাঠ্যপুস্তক কিংবা অন্য কোনও মাধ্যমেই হোক,সেই ছোট্ট বয়স থেকেই রাসেলের ছিল অসাধারণ নেতৃত্বসুলভ আচরণ। ঢাকায় তার তেমন কোনও খেলার সাথী ছিল না। কিন্তু যখন পরিবারের সঙ্গে টুঙ্গিপাড়ায় বেড়াতে যেতেন,সেখানে তার খেলার সাথীর অভাব হতো না। রাসেল নিজেই বাচ্চাদের জড়ো করতেন,তাদের জন্য খেলনা বন্দুক বানাতেন,আর সেই বন্দুক হাতেই তাদের প্যারেড করাতেন। আসলে রাসেলের পরিবেশটাই ছিল এমন। রাসেলের খুদে ওই বাহিনীর (বন্ধুদের) জন্য জামা-কাপড় ঢাকা থেকেই কিনে দিতেন,প্যারেড শেষে সবার জন্য খাবারের ব্যবস্থাও করতেন। আর বড় হয়ে তুমি কী হবে-এমন প্রশ্ন কেউ করলে,রাসেল বলতো-আর্মি অফিসার হবো’ শিশু রাসেলের জন্মের পর থেকেই বঙ্গবন্ধু বিভিন্ন সময়ে নানান কারণে জেলবাস করতেন। তাই ছোট্ট রাসেলের ভাগ্যে তার বাবার সান্নিধ্য খুব কমই হয়েছে,রাসেলের সব থেকে প্রিয় সঙ্গী ছিল তার হাসুপা (শেখ হাসিনা) তার সমস্ত সময় জুড়েই ছিল হাসুপা। রাসেল হাসুপা’র চুলের বেণি ধরে খেলতে পছন্দ করতো সে চুল ধরে নাড়াতো আর ফিক ফিক করে হাসতো। রাসেলের হাঁটা শুরুও হয়েছে তার প্রিয় হাসুপা’র হাত ধরে,তাও আবার একদিনেই!এটি একটি বিরল ঘটনা। আসলে রাসেলের সবকিছুই একটু ব্যতিক্রম ছিল,আর থাকবে নাই বা কেন...? সে যে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র। তাঁর মন-মগজ আর শরীরের প্রতিটি শিরায়,উপ-শিরায় বহমান ছিল ব্যক্তিত্ব, মানবতাবোধ আর ভিন্নতা,যাতে অনায়াসেই রাসেলের ভক্ত হয়ে যেতো সে যে কেউ। খুনিরা ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি,বিশ্ব ইতিহাসের সবচেয়ে বর্বর ও নির্মমভাবে হত্যাকাণ্ডে সপরিবারে শিশু রাসেলকেও হত্যা করেছে। বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের বুলেটের আঘাতে একবারই হত্যা করেছে। কিন্তু শিশু রাসেলকে বুলেটের আঘাতে হত্যা করার আগেই কয়েকবার হত্যা করেছে। এগারো বছরের শিশু রাসেল আতঙ্কিত হয়ে কেঁদে কেঁদে বলেছিলেন, ‘আমি মায়ের কাছে যাবো’। পরবর্তী সময়ে মায়ের লাশ দেখার পর অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে মিনতি করেছিলেন, ‘আমাকে হাসু আপা (শেখ হাসিনা) কাছে পাঠিয়ে দিন’ বলে। পৃথিবীতে যুগে যুগে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, কিন্তু এমন নির্মম, নিষ্ঠুর এবং পৈশাচিক হত্যাকাণ্ড আর কোথাও ঘটেনি। মা-বাবা, দুই ভাই,ভাইয়ের স্ত্রী, চাচার লাশের পাশ দিয়ে হাঁটিয়ে নিতে-নিতে শিশু রাসেলকে প্রতিটি লাশের সামনে মানসিকভাবেও খুন করেছে। একান্ত আপনজনের রক্তমাখা নীরব-নিথর দেহগুলোর পাশে নিয়ে গিয়ে শিশু রাসেলকে আতঙ্কিত করে তুলেছিল, জঘন্য কর্মকাণ্ডের দৃশ্যগুলো দেখিয়ে তাকে ভেতর থেকেও হত্যা করে সর্বশেষে বুলেটের নির্মম আঘাতে রাসেলের দেহ থেকে অবশিষ্ট প্রাণ ভোমরাটিকেও চিরতরের জন্য নীরব-নিস্তব্ধ করে দিয়েছে বর্বর খুনিরা। ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর ধানমণ্ডির বত্রিশ নম্বর সড়কে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক বাড়িতে শিশু রাসেল যখন জন্মগ্রহণ করেন,তখনকার পরিস্থিতি ছিল রীতিমতো উত্তেজনক। ঐতিহাসিক ও রাজনৈতিক ঘটনাগুলো পূর্ব পাকিস্তানজুড়ে। একদিকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ডামাডোল, অন্যদিকে প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান ও সম্মিলিত বিরোধী প্রার্থী কায়দে আজম মুহম্মদ আলী জিন্নাহর বোন ফাতেমা জিন্নাহ। যখন কঠিন অনিশ্চয়তা আর অন্ধকারের মাঝেও এ অঞ্চলের মানুষ স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখছেন,ঠিক তখনই শেখ মুজিব- শেখ ফজিলাতুন নেছা’র ঘর আলোকিত করে জন্ম নিলো এক ছোট্ট শিশু যার নাম রাখেন ‘শেখ রাসেল’। ভালো মানুষ হয়ে বেড়ে ওঠার পেছনে পরিবার একটি বড় ধরনের ভূমিকা পালন করে থাকে। বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব ছিলেন একজন আদর্শ মাতা। তিনি তাঁর সন্তানদের নৈতিক শিক্ষায় মানুষ করেছেন,দিয়েছেন মানবিক গুণাবলিও। ঠিক তেমনিভাবে শেখ হাসিনার মাঝে অনুরূপ গুণাবলি প্রতিমান। তিনি তাঁর সন্তানকে নৈতিক শিক্ষা আর মানবিক গুণাবলি দিয়ে জয়-পুতুলকেও গড়ে তুলেছেন। শিশু রাসেল বেঁচে থাকলে আজকের ৫৮ বছরের মানুষটিও হতেন এক অন্যন্য গুণাবলির ব্যক্তিত্ব। আর তাদের ওই ঘৃণ্য অপচেষ্টা যে শতভাগ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়েছে-এটি আজ প্রমাণিত। শেখ রাসেল আজ বাংলাদেশের প্রতিটি শিশু-কিশোর, তরুণ, শুভবুদ্ধিবোধ সম্পন্ন মানুষের কাছে একটি আদর্শ ও ভালোবাসার নাম। অবহেলিত,পশ্চাৎপদ, অকার বঞ্চিত শিশু-কিশোরদের আলোকিত জীবন গড়ার প্রতীক হয়ে গ্রাম থেকে শহর তথা বাংলাদেশের প্রতিটি লোকালয়ে ছড়িয়ে পরক। আজকের এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, কমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও জেলা পরিষদের সদস্য সাবেক ভিপি জাকির হোসেন,১৩ নং মুরাদনগর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন, জেলা মৎস্য লীগের সদস্য সচিব মোঃ রাজিব মুন্সি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম শাহেদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ন আহবায়ক সোহরাব হোসেন বেলাল, কৃষক লীগের আহবায়ক কামাল খন্দকার, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সেলিম, মুরাদনগর উপজেলা যুবলীগের সদস্য জহিরুল ইসলাম জুয়েল, মুরাদনগর থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাফেজ খান, প্রমুখ। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, শহীদ শেখ রাসেল অল্প বয়সে মানুষের প্রতি যে ভালোবাসা এবং সুচিন্তার বিবেচিত আচরণ কর্মকাণ্ড ছিল তাহা সারা বাংলার আনাচে কানাচে স্মৃতি বিচরণ করে আছে। আর এখানেই গবেষণা করে মানবতার প্রতীক শিশু শেখ রাসেলের জীবনের প্রতিটি দিন-ক্ষণের গল্পগুলো আমাদের কোমল শিক্ষার্থীদের মাঝে তুলে ধরবে-এটাই জাতির এবং আমাদের প্রত্যাশা। মুরাদনগর উপজেলার আওয়ামী অঙ্গসংগঠনের সকলের প্রত্যাশা, শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি।শেখ রাসেল আমাদের ভালোবাসা।হয়ে থাকুক চিরকাল ।

...
K. M. Sharfin Shah

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি


খুলনা বিভাগের সাংবাদিক, মুক্ত হাতে যারা লিখতে ভালোবাসেন তাদের জন্য সুখবর। বাংলাদেশের বহুল প্রচারিত, মিডিয়া অন্তুর্ভুক্ত জাতীয় দৈনিক সরেজমিনবার্তা পত্রিকায় খুলনা বিভাগীয় প্রধান , জেলা প্রতিনিধি , বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি পদে নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীগণ ০১৭১৫ ৯৫ ৯৩ ৪৪ এই নম্বর এ যোগাযোগ করুন।

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ