গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত অনলাইন নিবন্ধন নাম্বার ৬৮

ফরিদপুর 2 আসনের নগরকান্দা সালথা হাট কেষ্টপুরের আশার আলো অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৫ দিন ২২ ঘন্টা ৪২ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 930
...

টাকা আর ক্ষমতা থাকলে নেতা হওয়া যায় না । তবে নেতৃত্বের গুণাবলী সবার মাঝে থাকে না। জনগণের ভালোবাসা লাগে , যিনি কর্মীর মনের ভাষা বোঝেন। জনগণের সুখ দুঃখে পাশে দাঁড়ান । তাদের কষ্ট ভাগ করে নেন নিঃস্বার্থভাবে জনগণকে যে ভালোবেসে যান । মুখ দেখলেই বলে দিতে কর্মীর নাম । তেমনই একজন কর্মীবান্ধব নেতা অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া । ফরিদপুরের নগরকান্দা-সালথার গণমানুষের নেতা। তিনি মানবিক সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করে দিয়েছেন । যেকোন প্রয়োজনে পাশে দাঁড়াচ্ছেন। বাড়িয়ে দিচ্ছেন সহযোগীতার হাত । দুর্যোগ এবং করোনাকালে নিজের অর্থ থেকে দিয়েছেন নগরকান্দা সালথা উপজেলা হাজারো মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ। এছাড়াও এলাকার ৫ম ও ৮ম শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বই, খাতা, কলমসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরন প্রদান করেন। শীতে অসহায় শীতার্তদের মাঝে শীত বস্ত্র সহ এলাকার ভাংগা রাস্তা মেরামত ও শাকো পুল এবং মাটির রাস্তা নির্মান করে এলাকায় ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় সরকারী বরাদ্দ ছাড়াই সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে মসজিদ- মাদ্রাসা নির্মাণ, স্কুল নির্মাণ, গরিব অসহায় শিক্ষার্থীদের এককালিন নগদ অর্থ সহায়তা করেন ।এছাড়া তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের নামে প্রতিষ্ঠিত শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামী লীগের সাথে জড়িত আছেন । তিনি বলেন বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ নায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শ আমার হৃদয়। আমি যতদিন বাঁচবো তার আদর্শ নিয়েই। নগরকান্দা সালথা উপজেলার বিষয়ে কিছু জানতে চাইলে। তিনি দীর্ঘ নিঃশ্বাস ছেড়ে বলেন সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর। অসুস্থতার পর থেকে তার দায়িত্ব পালন ,করছেন তার ছোট্ট ছেলে শাহাদাত হোসেন লাভলু চৌধুরী। কিন্তু তার কর্মকাণ্ডে সালথা নগরকান্দা উপজেলার জনগণ এখন অতিষ্ঠ। তারই এক কর্মী ওয়াদুদ মাতব্বরকে স্বতন্ত্র থেকে ভোটে পাশ করিয়ে ।বানিয়েছেন উপজেলা চেয়ারম্যান। কিন্তু দেখেন কি হিংসা। তাদের ভেতর শাহাদাত হোসেন লাভলু চৌধুরীর বড় ভাইয়ের ফাঁসির দাবি করছে সালথা উপজেলার চেয়ারম্যান ওয়াদুদ মাতব্বর । সালথা উপজেলা তিনি লুটেপুটে খেতে গিয়ে। হয়েছেন গ্রেফতার। সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াদুদ মাতব্বরের বিরুদ্ধে আছে একাধিক মামলা রয়েছে ।।সালথায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের মামলায় জেল হাজতে। সালথা উপজেলার চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বরকে শোন এরেস্ট (পুনরায় গ্রেফতার) দেখানোর জন্য এ মাসের ১৬ জুলাই পুলিশের পক্ষ থেকে কোর্টে একটি আবেদন দেওয়া হয়েছে। চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বরের বিরুদ্ধে সালথার আলোচিত তাণ্ডব মামলায় ১৪৩/১৮৬/১৪৭/১৪৮/১৪৯/৩০২/২০১/৩৪১/৩৩২/৩৫৩/৩০৭/৪২৭/৪৩৬/১০৯/১১৪/৩৪ ধারার পেনাল কোডে দাখিলকৃত চার্জশিটে অভিযোগ আনা হয়।সোনার বাংলাদেশ গড়ার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমার একটাই আকুল আবেদন এই সমস্ত সরকার বিরোধীর মূল শিকড় উপরে ফেলুন এবং সেই সাথে সাথে ফরিদপুর জেলা পুলিশ সুপারকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য অনুরোধ করা হইল

...
Mohammad Soworar
01304744174

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ