+

সৌদি আরবের নয়নাভিরাম ফারাসান দ্বীপপুঞ্জ ইউনেস্কোর তালিকায়

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১৬ দিন ৩ ঘন্টা ৩৫ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 1400
...

 

মোহাম্মদ বেলাল উদ্দীন সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার :

আরবের ফারাসান দ্বীপপুঞ্জ ইউনেস্কোর এমএবি তালিকায় জায়গা পেয়েছে। ফারাসন আর্কিপেলাগো, সৌদির দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত প্রবাল দ্বীপ। এটি জিজান শহর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। দ্বীপপুঞ্জটির নৈসর্গিক সৌন্দর্য মুগ্ধ করে ভ্রমণপিপাসুদের

সৌদির জিজান শহর থেকে ৪০ কি.মি. দূরে অবস্থিত ফারাসান দ্বীপপুঞ্জ জায়গা পেয়েছে ইউনোস্কোর এমএবি তালিকায়।

লোহিত সাগরে অবস্থিত দ্বীপটির নির্মল নীল জল এবং সমৃদ্ধ সামুদ্রিক প্রাণীর বাহার পর্যটকমহলে বেশ সুখ্যাতি লাভ করেছে।
এখানে অনেকগুলি ঐতিহাসিক প্রাসাদ এবং ঐতিহ্যবাহী স্থান রয়েছে। যেগুলি আগে বাণিজ্যিক ও যুদ্ধজাহাজের জন্য বন্দর হিসেবে ব্যবহৃত হতো।

ফারাসানে বার্ষিক হেরেদ ফিশিং অনুষ্ঠানটি বেশ কয়েক দশক আগে থেকে হয়ে আসছিল। তবে চলতি বছর কোভিড-১৯ ভাইরাসের জন্য অনুষ্ঠিত হয়নি।

দ্বীপটির মনোমুগ্ধকর দৃশ্য, বৈচিত্র্যময় বৈশিষ্ট্য, দৃষ্টিনন্দন জীবনপ্রকৃতি এবং প্রকৃতির প্রাচীন সৌন্দর্যেরআধার এই ফারাসন । সম্প্রতি সৌদি আরব সরকার এই দ্বীপগুলির বিকাশ এবং সেখানকার সংস্কৃতি সংরক্ষণের জন্য একটি বিস্তৃত পরিকল্পনা তৈরি করেছে ।

এর অংশ হিসাবে, সৌদি আগামী মাসের শেষের দিকে ইউনেস্কোর জীবন এবং প্রকৃতি প্রোগ্রামের (এমএবি) প্রথম সংরক্ষিত প্রাকৃতিক হিসাবে ফারাসান দ্বীপপুঞ্জ রিজার্ভ করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে

এদিকে সৌদি আরবের ঐতিহ্য সংরক্ষণ সমিতির পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রিন্স বদর বিন ফরহাদ টুইট করে বলেছেন, “আমরা ইউনেস্কোর এমএবি তালিকাতে ফারাসান দ্বীপপুঞ্জ অন্তর্ভুক্ত হওয়াতে বেশ আনন্দিত হয়েছি। এটা আমাদের দেশের জনগণকেও আনন্দিত করেছে। এটার মাধ্যমে আমরা আমাদের সংস্কৃতিক বৈচিত্র ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে পারব 
দ্বীপপুঞ্জটি অনেকগুলো দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত। এদের অধিকাংশই ফারাসান এল-কবীর, ফারাসান জাতীয় রিজার্ভের কেন্দ্র। এটি সৌদির একটি প্রকৃতির সংরক্ষণ এলাকা, যা ৮৭ টি বিরল প্রজাতির প্রাণীর গুরুত্বপূর্ণ প্রজনন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে 

দ্বীপপুঞ্জটি “ওয়েস্টার্ন এশিয়া শ্রেষ্ঠ দ্বীপ” র্যাংকিংয়ে সম্মানজনক ৬ তম স্থান নেয়। দ্বীপটি সী ড্রাইভিং ভক্তদের জন্য আকর্ষণীয় একটি জায়গা ।এখানে লোহিত সাগরের তীরে বিরল প্রজাতির সামুদ্রিক কচ্ছপ ,ডলফিন,বিভিন্ন প্রজাতির ঈল, হাঙ্গরের দেখা পাওয়া যায়। এর স্বচ্ছ সৈকতগুলো উজ্জ্বল বালুকা ও পাথুরে হয়।

ভ্রমণের জন্য এটি একটি আকর্ষণীয় স্থান । যেকোন সমুদ্রপ্রেমীর নিকট ফারাসান আদর্শস্থান। বছরের যেকোন সময় এখানে ভ্রমণ করা যায়। শুধুমাত্র শীতকালে ভ্রমণ না করাই ভাল। কেননা এখানে শীতকালে প্রচণ্ড ঠান্ডা পড়ে।

সম্প্রতি পর্যটন খাতের আয় বাড়াতে চাচ্ছে সৌদি সরকার। তেলনির্ভরতা কমিয়ে পর্যটনের উপর আয় বাড়াতে ইতিমধ্যে নানান উদ্দ্যোগ নিয়েছে তারা। এ জন্য বিনিয়োগ আকর্ষণে দেশটির ৬৬টি দ্বীপ প্রস্তুত করা হয়েছে। সৌদি কমিশন ফর ট্যুরিজম অ্যান্ড ন্যাশনাল হেরিটেজ (এসসিটিএনএইচ) এ ঘোষণা দিয়েছে।

এসসিটিএনএইচের প্রধান রুস্তম আল-কুবাইসি , তিনটি বড় দ্বীপ—ফারাসান, সজিদ ও মুহাররাকে আবাসনের খুব ভালো ব্যবস্থা করা না গেলেও ঘাট, ছাতা ও আশ্রয় নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এক প্রতিবেদনে জানা যায়, প্রতি বছর মাছ ধরার উৎসবে গড়ে ২০ লাখ সৌদি রিয়াল বা চার কোটি ২০ লাখ টাকা আয় করে সৌদি সরকার। এসব উপলক্ষ কেন্দ্র করে হাজার হাজার বিদেশি দেশটিতে উপস্থিত হয়।

বন্দরনগরী জাজান থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে ফারাসান দ্বীপের অবস্থান। এ ধরনের অনেক দ্বীপ আরব উপকূল রয়েছে। এসব দ্বীপের সৌন্দর্য উপভোগ করতেই বিদেশিরা ভিড় করে।

জাজান থেকে ফারাসানে যেতে কোনো পরিবহন খরচ লাগে না। এ জন্য দুটি জাহাজ সেবা দিয়ে থাকে। স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৭টায় জাজান থেকে রওনা হলে বিকেল সাড়ে ৩টায় ফারাসানে পৌঁছানো যায়

...
MD. Shajalal Rana(SJB:E078)
Mobile : 01881715240

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ